সরকারি চাকরির খবর

 

আসলে চাকরি পেতে কিছুই লাগেনা! শুধু টাকা হলেই চাকরিটা পেয়ে যাবেন” এরকম বহু কথা আমাদের সমাজে প্রচলিত। কথা সম্পূর্ণ সত্য নয় কারণ- মামা, খালু কিংবা টাকা থাকলে চাকরিটা হবে এমন নয়। ৷ চাকরি পেতে হলে যোগ্যতা প্রয়োজন। যোগ্যতা শুধু বই পড়লেই আসে না। যোগ্যতা অর্জন করতে কঠোর পরিশ্রম করতে হয়। চাকরির মূল্য সর্ত হলো দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা । সমাজে একটি প্রচলিত কথা আছে, ‌‘বাংলাদেশে চাকরি পাওয়া অনেক কঠিন; চাকরি সবার কপালে জুটে না। সরকারি চাকরি হলে তো আর কোনও কথাই নেই। সরকারি চাকরি তো বাংলাদেশে সোনার হরিণ।’

 

উপরের কথাটি আংশিক সত্য হলেও, পুরোপুরি নয়। আবার এই কথাটি সবার জন্য সমানভাবে প্রযোজ্যও নয়। আপনি যদি কঠোর পরিশ্রম করে বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করেন তাহলে আপনি চাকরি পাবেন না কেনো। নিজেকে কখনো প্রশ্ন করেছেন আপনি চাকরি যেনো পান না। চাকরি পাওয়ার যোগ্যতা আপনার আছে কি না সেটি আপনি ভালো জানেন। বাংলাদেশে চাকরি অনেকতো সোনার হরিণের মতো। এদেশের দুর্নীতির জন্য আমাদের মত সাধারণ মানুষের চাকরি পাওয়া অনেক কঠিন হয়ে পড়েছে। 

চাকরির খবর

জীবনে সফল হতে হলে চাকরি খুব বড় বিষয় নয় চারি ছাড়াও জীবনে সফল হওয়া সম্ভব। ইতিহাসের দিকে তাকালে আমরা দেখতে পাই পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী লোকেরাই চাকরি না করে নিজের কোম্পানি খুলেছে এর কঠোর পরিশ্রম করে তারা সফলতার চূড়ায় পৌঁছেছে। আপনি একটি কাজ করতে গেলে আপনার আশেপাশের মানুষ বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য করবে তবে আপনার বিশ্বাস অটল রাখতে হবে। নিন্দুকের কাজ নিন্দা করা তারা কখনো ভালো জিনিস চোখে দেখে না।

 

 নেলসন ম্যান্ডেলা একটা কথা  বলেছিলেন_কোনো কাজ সম্পন্ন করার আগ পর্যন্ত তা সবসময় অসম্ভবই মনে হয়।’কিন্তু আপনি যখন করে ফেলবেন তখন আর অসম্ভব মনে হবে না। তখন আপনার শুভাকাঙ্ক্ষী ও নিন্দুক সবাই আপনার প্রশংসা করবে এবং আপনাকে বাহবা দিবে।

 

সুতরাং, চাকরি কোনো বড় বিষয় নয় নিজের আত্মবিশ্বাস হলো বড় বিষয়। আত্মবিশ্বাস থাকলে আপনি চাকরি ছাড়াও সফল হতে পারবেন। 

 

বাংলাদেশের চাকরির খবর

 

চাকরির খবর দেখে যাচাই বাছাই করে সিদ্ধান্ত নিন

মাঠে ঘাটে কিংবা দেয়ালে চাকরির বিজ্ঞাপন দেখে অনেকেই পাগল হয়ে যান। এই বুঝি চাকরিটা হয়ে গেল। আসলে এসকল বিজ্ঞাপনে কোনো চাকরি পাওয়া যায় না। যদি হয়েও যায় তাহলেও বুঝবেন নিশ্চয় কোনো সমস্যা আছে। চাকরির যেকোন বিজ্ঞাপন দেখে বিচলিত না হয়ে বরং বিজ্ঞাপন সম্পর্কে ভাবুন। সত্য মিথ্যা যাচাই করুন। আজকাল নামিদামি পত্রিকাতেও ভূইফোর চাকরির খবরের বিজ্ঞাপন পাওয়া যায়। 

 

অনেকেই এসব চাকরির অফারের খপ্পরে পড়ে সর্বস্ব হারিয়ে ফেলেন৷ বিশ্বস্ত যেকোন সোর্স থেকে চাকরির বিজ্ঞাপন দেখে সিদ্ধান্ত নিন। মনে রাখবেন রাস্তাঘাটে,বিভিন্ন দালানের দেয়ালে যে চাকরির খবর পাওয়া যায় সেগুলো আসলে আপনাকে ফাঁসানোর জন্য। আপনি যখন তাদের ঠিকানায় যাবেন তারা আপনাকে বিভিন্নভাবে বুঝিয়ে আপনার থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিবে। 

 

যোগ্যতা: সত্য মিথ্যা যাচাই এর যোগ্যতা টা পূর্ণ থাকতে হবে। দূর্বল চিত্তের মানুষ হলে চাকরির নামে সর্বস্ব হারানোর ঝুঁকি থাকবে। যোগ্যতার ক্ষেত্রে আরেকটি বিষয় যোগ করতে চাই, চাকরির খবর পেয়ে তাড়াহুড়ো না করার সক্ষমতা থাকা বাঞ্চনীয়। বাংলাদেশে এখনো অনেক চাকরির খবরের জন্য বিজ্ঞাপন সংস্থা আছে যেখান থেকে আপনি নিয়মিত চাকরির খবর পাবেন। নিচে কিছু চাকরির খবর সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন সংস্থার নাম দেওয়া হলো:

কর্ম জব

 

কর্ম জব একটি চাকরির খবর সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন সংস্থা যা সরাসরি গুগল নিয়ন্ত্রণ করে এটি পৃথিবীর অনেক দেশেই আছে। অনেক চাকরি পর্থি আছে যারা কর্ম জবের মাধ্যমে নিয়োগ পেয়েছে। বাংলাদেশে চাকরির খবরের জন্য কর্ম জব একটি বিশ্বস্ত মাধ্যম। অনেক নামিদামি কোম্পানি তাদের চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি গুগল এ প্রকাশ করে এরপর যাদের চাকরি প্রয়োজন তারা তাদের ইচ্ছামত চাকরি নির্ধারণ করে আবেদন করতে পারে। কর্ম জব যেহেতু গুগল নিয়ন্ত্রণ করে তাই আমরা বলতেই পারি চাকরির খবর গুলো সবচেয়ে বেশি নিরাপদ।

 

বিডি জব 

 

বাংলাদেশের দ্বিতীয় সবচেয়ে জনপ্রিয় চাকরির খবরের মাধ্যম হলো বিডি জব নিউজ পোর্টাল। বিডি জবস একটি বিশ্বস্ত চাকরির খবরের ওয়েবসাইট যেখান থেকে আপনি প্রতি দিন শত শত চাকরির খবর পাবেন। আর বিডি জবস এ চাকরির খবর প্রকাশ করার আগে বিডি জবস সেই চাকরির খবরের সত্যতা যাচাই করে নেই। তাই এখানে ধোঁকা খাওয়ায় কোনো চান্স নেই। আপনি চাইলে বিডি জবস এ আপনার একাউন্ট তৈরি করে রাখতে পারেন এবং আপনার জীবন বৃত্তান্ত সহ সকল প্রকার সনদ পত্র জমা রাখতে পারেন যখন আপনার চাকরির প্রয়োজন হবে। আপনি সাথে সাথে আপনার নির্ধারণ করা চাকরিতে আবেদন করতে পারবেন।

 

বিডি জবস এর ভিশন হল ইন্টারনেট প্রযুক্তিকে সমাজের মূলধারার ব্যবসায়িক ও অর্থনৈতিক জীবনে আনার চেষ্টা করা।

 

চালু হওয়ার পরপরই, সাইটটি দেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের আকৃষ্ট করতে সক্ষম হয়েছে। সাইটটি নিয়মিতভাবে চাকরির তথ্য আপডেট করে সাইটে যে কোনো সময়ে গড়ে ২৫০০ টিরও বেশি বৈধ চাকরির খবর রাখা হয় চাকরিপ্রার্থীদের জীবনবৃত্তান্ত এবং অনলাইন আবেদন পোস্ট করার সুবিধা প্রদান করে। এছাড়াও সাইটটি দেশের অনেক প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ভালো সাড়া পেতে সক্ষম হয়েছে যারা অনলাইন চাকরির বিজ্ঞাপন সুবিধা, অনলাইন সিভি ব্যাংক অ্যাক্সেস এবং www.bdjobs.com এর অনলাইন আবেদন গ্রহণ ও প্রক্রিয়াকরণ সুবিধা ব্যবহার করে। এখন পর্যন্ত, দেশের ২৫,০০০ এরও বেশি নিয়োগকর্তা বিডিজবস ডটকম পরিষেবার মাধ্যমে তাদের প্রতিষ্ঠানের জন্য বিভিন্ন স্তরে ৩,৫০,০০০ এরও বেশি পেশাদার নিয়োগ করেছেন।

 

উপরে উল্লেখিত ওয়েবসাইট  ছাড়াও আরো কিছু ওয়েসাইট রয়েছে যারা নিয়মিত চাকরির খবর প্রকাশ করে তাদের মধ্যে অন্যতম কয়েকটির নাম__

বাংলাদেশের সবচেয়ে সেরা চাকরির খবর প্রকাশনী ২০২২

 

(চাকরির খবর ওয়েবসাইট)

 

১. চাকরির খবর

 

২. ঢাকা পোস্ট

 

৩. প্রথম আলো

 

৪. বাংলা সাইবার

 

৫. সরকারি চাকরির খবর

 

৬. ড্রিম বাঙালি

 

৭. সাধিন জবস

 

৮. জব লেখাপড়া

 

৯. কেএফ প্ল্যানেট

 

১০. আজকের চাকরির খবর

 

১১. সময় নিউজ

 

১২. প্রো জব

 

১৩. চাকরি খবর

 

১৪. বিডি জবস এডু

 

১৫. চাকরির খবর

 

বাংলাদেশের সবচেয়ে সেরা চাকরির খবর প্রকাশনী-২০২২

 

চাকরির খবর পত্র:

 

১. প্রথম আলো।

 

২. দৈনিক চাকরির খবর

 

৩. চাকরির খবর

 

৪. দৈনিক চাকরির খবর

 

৫. দৈনিক ইত্তেফাক

 

৬. সমকাল চাকরির খবর

 

৭. প্রতিদিন চাকরির খবর

 

৮. কালের কণ্ঠ চাকরির খবর

 

৯. নিউজ ডেস্ক চাকরির খবর

 

১০. ভোরের আলো চাকরির খবর।

 

উপরে উল্লেখিত ওয়েবসাইট এবং পত্রিকায় নিয়মিত চাকরির খবর প্রকাশ করা হয়। প্রতিদিন হাজার মানুষ পত্রিকা কিনে শুধু চাকরির খবর জানার জন্য। আপনি চাইলে আদের যেকোনো একটি পত্রিকা অথবা ওয়েবসাইটে ভিজিট করে আপনার কাঙ্ক্ষিত চাকরিটি খুঁজে নিতে পারেন।

যেসব দক্ষতা থাকলে আপনি সহজেই চাকরি পাবেন

 

১. বেসিক কম্পিউটার

 

এই যুগে চাকরি পেতে হলে আপনার প্রথমেই যোগ্যতাটি থাকতে হবে সেটি হচ্ছে কম্পিউটার  সফটওয়্যার ব্যবহারের দক্ষতা।

 

আরও সুনির্দিষ্ট ভাবে বললে বলা যায়, ওয়ার্ড এবং এক্সেলে যেকোন কাজ করার দক্ষতা। আপনার বাংলা এবং ইংরেজি উভয় ভাষার টাইপিং স্পিড অবশ্যই ভাল হতে হবে এবং কম্পিউটারসহ এর বেসিক ফাংশন গুলো অবশ্যই জানা থাকতে হবে।

 

২. দলগত কাজ

 

টিম ওয়ার্ক বা দলগত ভাবে কাজ করার দক্ষতাও আপনার থাকতে হবে। তা না হলে আপনি সহজে চাকরি পাবেন না। অনেকেই এই দক্ষতাটি ভালভাবে রপ্ত না করেই চাকরিতে যোগ দেয়, কিন্তু পরবর্তীতে অফিসে অন্যদের সাথে আর নিজেকে ঠিকমত খাপ খাওয়াতে পারে না। দলগত কাজের মধ্যেই যেখানে সফলতা লুকিয়ে থাকে সেখানে আপনি একা কিছুই নয় একটি প্রবাদ ব্যাক আছে দশের লাঠি একের বোঝা। কথাটির অর্থ হচ্ছে যেকাজ একজন করতে খুব সময় লাগে সেই কাজ কয়েকজন মিলে করলে খুব সহজেই করা যায়।

 

তাই, আপনি যদি আপনার কর্মক্ষেত্রে ভাল পারফরম্যান্স দেখাতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই টিম ওয়ার্ক করা শিখতে হবে।

 

 ৩. কমিউনিকেশন বা যোগাযোগ দক্ষতা

 

চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে এটি এমন একটি দক্ষতা যেটির প্রমাণ আপনাকে দিতে হবে চাকরি পাওয়ার আগে থেকেই। ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার এই দক্ষতাটাই যাচাই করা হবে।

 

কমিউনিকেশন বা যোগাযোগ দক্ষতা একটি ব্যাপক ভিত্তিক দক্ষতা। এটা আপনাকে অর্জন করতেই হবে।

 

অফিসের ভেতরে অন্য কলিগদের সাথে যেমন আপনার যোগাযোগ করতে হবে, তেমনি ব্যবসায়িক প্রয়োজনে বাইরের লোকেদের সাথেও আপনার যোগাযোগ করতে হবে। এই দুই ধরনের যোগাযোগের জন্য প্রয়োজনীয় দক্ষতা আপনাকে অর্জন করতে হবে।

 

৪. সামজিক মাধ্যম ব্যবহারের দক্ষতা

 

বর্তমান বিশ্বে বেশিরভাগ মানুষ ইন্টারনেট চালাতে পারে। তার সাথে শুধু ইন্টারনেট চালাতে নয় বরং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম দিয়ে বিভিন্নভাবে তারা তাদের পণ্যের মার্কেটিং করে থাকে আপনি যদি এই  সোশ্যাল মিডিয়া বা সামাজিক মাধ্যম গুলো সঠিকভাবে ব্যবহারের দক্ষতা থাকে তাহলে আপনি খুব সহজেই চাকরি পাবেন। আধুনিক এই যুগে আপনি যদি কোন চাকরি করতে চান, তাহলে এই দক্ষতাটি আপনার থাকতেই হবে।

 

 ৫. ব্যবসায়িক সচেতনতা

 

এই যুগে কিভাবে একটি কম্পানিকে টিকে থাকতে হয়, কি ধরনের বাঁধা এখনকার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান গুলো মোকাবেলা করে, সে সম্পর্কে আপনার অবশ্যই জানা থাকতে হবে।

 

সহজভাবে বলতে গেলে, আপনার যদি এই জ্ঞান না থাকে তাহলে এযুগে চাকরি পাওয়ার প্রত্যাশা আপনার না করাই ভাল।

 

কেননা, একটি কোম্পানি কখনই এমন লোক কে নিয়োগ দিতে চাইবে না, যে বর্তমান সময়ের ব্যবসা বোঝে না। আপনাকে নিয়োগ দিয়ে যদি কোম্পানির ব্যবসায়িক অগ্রগতি বাঁধা গ্রস্ত হয়, তাহলে কেন আপনি চাকরি পাবেন, সেটা নিজেই একবার ভেবে দেখুন!

 

৬. শিখন দক্ষতা

 

আপনি নিশ্চয় সবজান্তা নন। আর এটা হওয়া কারও পক্ষেই সম্ভব নয়। তাই আপনাকে প্রতিনিয়ত শেখার ক্ষমতা বা দক্ষতা থাকতে হবে।

 

চাকরি করতে গেলে দেখবেন, প্রতিদিনই নতুন নতুন অনেক কিছু আপনার সামনে আসছে। সেগুলো থেকেই আপনার অভিজ্ঞতা তৈরি হবে।

 

এজন্য প্রতিনিয়ত আপনাকে নতুন জিনিস শিখে নেয়ার দক্ষতা থাকতে হবে। যাদের মধ্যে এই দক্ষতাটি আছে, দেখবেন তারা চাকরি জীবনে খুব দ্রুত সফলতা পেয়ে যায়। কারণ তারা জানে, কিভাবে নতুন কিছু শিখে নিতে

 

৭. উপস্থাপন দক্ষতা

 

চাকরি করতে হলে, আপনাকে বিভিন্ন সময় নানা ধরনের আলচনায় যোগ দিতে হবে।সেক্ষেত্রে আপনি যদি কোনো বিষয়ের উপর উপস্থাপন করতে না পারেন তাহলে পরবর্তীতে আপনার সমস্যা হবে। সেটা ইন্টারনাল হোক বা এক্সটারনাল হোক। আপনাকে কিন্তু ভালভাবে আলোচনা চালিয়ে নেয়ার দক্ষতা দেখাতে হবে। অপস্থাপন দক্ষতা যদি ভালো হয় তাহলে আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতার শিথিল করতে পারে কোম্পানি।

 

চাকরি জীবনে আপনি যদি উপস্থাপন দক্ষতা অর্জন করতে না পারেন তাহলে আপনি আপনার ক্যারিয়ার খুব বেশি দুর এগিয়ে নিতে পারবেন না। তাই এই দক্ষতাটি ভালভাবে রপ্ত করুন।

 

৮. সমস্যা সমাধান দক্ষতা

 

চাকরি পেতে ৫ নাম্বার দক্ষতা হিসেবে আপনার থাকতে হবে, যে কোন সমস্যা সমাধান করার ক্ষমতা। এখানে সমস্যা বলতে আপনার কাজের পরিধির ভেতরে তৈরি হওয়া যেকোন সমস্যাকে বোঝানো হয়েছে।

 

চাকরি করতে গেলে দেখবেন, যে কোন সময়, যে কোন ধরনের সমস্যা এসে আপনার সামনে হাজির হচ্ছে। এসব সমস্যার সমাধান আপনাকেই করতে হবে। আর তা করার মত প্রয়োজনীয় দক্ষতাও আপনার থাকতে হবে।

 

তাই চাকরি পেতে হলে, প্রবলেম সলভিং বা সমস্যা সমাধান করার দক্ষতা অর্জনের দিকে মনোযোগ দিন।

 চাকরির বাজার 

চাকরির খবর নিয়ে কিছু কথা যা সবসময় মনে রাখবেন

 

চাকরির জন্য অপেক্ষা না করে কিছু শুরু করুন

একমাত্র চাকরির জন্য অপেক্ষা করা বোকামি। পড়ালেখা শেষ করার পর অভিজ্ঞতা বৃদ্ধির জন্যে হোক কিংবা জীবিকা নির্বাহের জন্য হোক- কিছু করুন৷ মাস্টার্স  পাশ করেও ফুল, ফলের বাগান করতে পারেন এর উদাহরণ আমরা প্রতিনিয়ত দেখেই চলেছি। কোন কিছুই ছোট নয়।শুধু আপনার মানসিকতা পরিবর্তন জরুরি। আপনি একটি ভালকাজ করতে গেলে সেখানে বাধা আসবেই তাই বলে এই নয় আপনি সেই কাজ মাঝপথে ছেড়ে দিবেন। আত্মবিশ্বাস নিয়ে সকলকে দেখিয়ে দিন আপনিও সঠিক কাজ করেছেন।

 

বসে থাকলে আপনার উপর চাপ বাড়বে, জীবন নিয়ে হতাশায় ভুগবেন। চাকরি না পেলে ডিপ্রেশনে ভুগবেন। এসব ডিপ্রেশনে ভুগার পরিবর্তে বাসায় থেকে চাকরির খবর খুজার পাশাপাশি কিছু করুন।

 

চাকরি চাই, চাকরি চাই এসব পাগলামোর পাশাপাশি আত্মনির্ভরশীল হওয়ার চেষ্টা করুন। বাংলাদেশে যত বড় বড় চাকুরীজীবি আছে তাদের সকলের কোন না কোন বিজনেস অবশ্যই আছে। চাকরির পাশাপাশি অনেকেই খামার করছেন কেউবা মাছ চাষ করছেন আবার কেউ বা কৃষিকাজও করছেন। বাংলাদেশের বেশিরভাগ ব্যাবসায়িক মানুষকে দেখবেন তারা শুরু থেকেই কিছু না কিছু করে আছে যার কারণে আজকে তারা সফল উদ্যোক্তা হতে পেরেছে। কঠোর পরিশ্রম করে তারা সফলতার মুখ দেখেছে।

 

আপনি যদি কেবল চাকরির পেছনে ঘুরে মূল্যবান সময়গুলো নষ্ট করেন তবে সেটি অনেকটাই বোকামি। আজ থেকে চাকরির প্রস্তুতির পাশাপাশি বিকল্প চিন্তা করুন। আর চাকরির ক্ষেত্রে উপরের ধাপগুলো মেনে চলুন; চাকরিও হবে জীবিকাও চলবে। একটি চাকরি আপনার ভবিষ্যৎ পরিবর্তন করতে পারবে না কিন্তু একটি সফল ব্যাবসা আপনার সম্পূর্ণ জীবনকেই পরিবর্তন করতে সক্ষম। চাকরির মেয়াদ শেষ হলে আপনাকে অবসর নিতে হবে কিন্তু বাসায় আপনি আপনার সময়মতো উপযুক্ত পদক্ষেপ নিতে পারবেন ইচ্ছা হলে অবসর নিবেন ইচ্ছা হলে থেকে যাবেন। ব্যাবসা একটি স্বাধীন পেশা।

 

করণীয়: চাকরির খবর বা চাকরির বিজ্ঞাপন দেখে আপনি প্রথমে নির্বাচন করুন- চাকরিটি আপনার দক্ষতার সাথে মিলে যায় কি না। ভুল সিদ্ধান্ত আপনার সময় নস্ট করে দিবে।  তারপর আপনার সিলেক্টেড চাকরি হলে চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান নিয়ে গুগলে একটু ঘাটাঘাটি করুন। কেনোননা অনেক সুনামধন্য পত্রিকা থাকলেও আপনি সর্বপ্রথম নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে তারপর চাকরির জন্য আবেদন করুন। প্রতিষ্ঠানটি আপনার কাছে বৈধ মনে হলে আবেদন করার জন্য মনস্থির করুন। আর অবৈধ মনে হলে আবেদন করা থেকে বিরত থাকুন।

 

সাবধানতা: বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে চাকরির খবরে যত বিজ্ঞাপন বা চাকরির অফার থাকে তার মধ্যে ভুয়া বা জাল চাকরির খবরই বেশি। এরকম ভুয়া হাজারো প্রতিষ্ঠান রয়েছে যারা চাকরি দেওয়ার নাম করে হাজারো মানুষের সর্বস্ব কেড়ে নিচ্ছে। এদের থেকে সাবধান থাকতে হবে। যেসব চাকরিদাতারা চাকরি দেওয়ার কথা বলে জামানত দাবি করে তাদের এড়িয়ে চলুন৷ কারণ জামানতের বিপরীতে চাকরি করার থেকে না করায় ভালো। মনে রাখবেন চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠান কখনও আপনার নিকট জামানত চাইবে না। আপনার যোগ্যতা থাকলে আপনি বিনা জামানতে চাকরি পাবেন।

বাংলাদেশের বর্তমান চাকরির বাজার 

বাংলাদেশের বর্তমান চাকরির বাজার 

 

বাংলাদেশের বর্তমান চাকরির বাজার খুবই সংকটে। কেননা বাংলাদেশে দৈনিক অনেক চাকরির খবর পাওয়া গেলেও উপযুক্ত দক্ষতার কারণে নিয়োগ দেওয়া সম্ভব হয় না। সর্বপ্রথম আমাদের সকলকে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। যে বিষয়ে আমাদের আগ্রহ বেশি সেই বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। বাংলাদেশেই নয় সম্পূর্ন পৃথিবীতে আপনি যদি চাকরি পেতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। বর্তমান পৃথিবী যেহেতু তথ্য প্রযুক্তির উপর নির্ভর করে চলছে তাই ভবিষ্যতের জন্য আমাদের সবাইকে 

 

তথ্য প্রযুক্তির উপর দক্ষতা অর্জন করতে হবে তার মধ্যে যেমন: ওয়েব ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, সোসিয়াল মিডিয়া মার্কেটিং, প্রোগ্রামিং, সফটওয়্যার ডেভলমেন্ট ইত্যাদি।

  • Leave a Comment