একনজরে বিকাশ এর সকল সমস্যার সমাধান দেখে নিন।

 

বিকাশ লিমিটেড (বিকাশ) হল বাংলাদেশে একটি ব্যাংক-নেতৃত্বাধীন মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডার যেটি ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের একটি সাবসিডিয়ারি হিসেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের (বাংলাদেশ ব্যাংক) লাইসেন্স এবং অনুমোদনের অধীনে কাজ করে। বিকাশ বাংলাদেশের ব্যাঙ্কবিহীন এবং ব্যাঙ্কড উভয়ের জন্য মোবাইল ফোনের মাধ্যমে অর্থপ্রদান এবং অর্থ স্থানান্তর পরিষেবাগুলি নিরাপদ, সুবিধাজনক এবং সহজ উপায় সরবরাহ করে। 

বর্তমানে, বিকাশ বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডার। বিকাশ ২০১০ সালে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, বাংলাদেশ এবং মানি ইন মোশন এলএলসি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে একটি যৌথ উদ্যোগ হিসাবে শুরু হয়েছিল। এপ্রিল ২০১৩  সালে, বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের সদস্য ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স কর্পোরেশন (IFC), একটি ইক্যুইটি অংশীদার হয়ে ওঠে এবং মার্চ ২০১৪ সালে, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন কোম্পানির বিনিয়োগকারী হয়ে ওঠে। 

২০১৮ সালের এপ্রিলে, বিশ্বব্যাপী স্বনামধন্য আলিবাবা গ্রুপের একটি সহযোগী অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল (আলি পে), বিকাশে বিনিয়োগকারী হয়েছেন। বিকাশের চূড়ান্ত উদ্দেশ্য বাংলাদেশের জনগণের জন্য বিস্তৃত পরিসরে আর্থিক পরিষেবার অ্যাক্সেস নিশ্চিত করা। সুবিধাজনক, সাশ্রয়ী এবং নির্ভরযোগ্য পরিষেবা প্রদানের মাধ্যমে বৃহত্তর আর্থিক অন্তর্ভুক্তি অর্জনের জন্য দেশের নিম্ন আয়ের জনগণের সেবা করার জন্য এটির বিশেষ মনোযোগ রয়েছে।

বিকাশ কি? ( What is Bikash )

 

মূলত গ্রামের দরিদ্র মানুষের আর্থিক লেনদেন সহজ করতে বিকাশ নিয়মিত কাজ করে থাকে। বাংলাদেশের জনসংখ্যার ৭০% এরও বেশি গ্রামীণ এলাকায় বাস করে যেখানে আনুষ্ঠানিক আর্থিক পরিষেবাগুলি অ্যাক্সেস করা কঠিন। তবুও এইসব লোকদের এই ধরনের পরিষেবার সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন হয়, হয় দূরবর্তী অবস্থানে থাকা প্রিয়জনের কাছ থেকে তহবিল পাওয়ার জন্য বা তাদের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতির জন্য আর্থিক সরঞ্জামগুলি অ্যাক্সেস করার জন্য। ১৫% এরও কম বাংলাদেশি আনুষ্ঠানিক ব্যাংকিং ব্যবস্থার সাথে সংযুক্ত যেখানে ৬৮% এর বেশি মোবাইল ফোন রয়েছে। 

 

এই ফোনগুলি কেবল কথা বলার জন্য ডিভাইস নয়, তবে আরও দরকারী এবং পরিশীলিত প্রক্রিয়াকরণের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে। বিকাশ প্রাথমিকভাবে এই মোবাইল ডিভাইসগুলি এবং সর্বব্যাপী টেলিকম নেটওয়ার্কগুলিকে ব্যবহার করে বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনগণের কাছে নিরাপদ উপায়ে আর্থিক পরিষেবাগুলি প্রসারিত করার জন্য ধারণা করা হয়েছিল। বাংলাদেশে কর্মরত সকল মোবাইল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিকাশে প্রবেশ করা যায়। বর্তমানে,

 

২০১৭ সালে, সামাজিক সমস্যার উপর ভিত্তি করে পরিবর্তন করার জন্য শীর্ষ ৫০টি কোম্পানির মধ্যে ফরচুন ম্যাগাজিনের ‘চেঞ্জ দ্য ওয়ার্ল্ড ২০১৭’-এর বার্ষিক তালিকায় বিকাশ ২৩তম কোম্পানি হিসেবে স্থান পেয়েছে। বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম কর্তৃক পরিচালিত ভোক্তা সমীক্ষায় বিকাশ পরপর দ্বিতীয়বারের মতো (২০১৯ এবং ২০২০) বাংলাদেশের সেরা ব্র্যান্ড হিসেবে স্বীকৃত হয়েছে। MFS (Multi Financial Services)ক্যাটাগরিতে টানা চতুর্থবারের মতো বিকাশকে ১ নম্বর মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস ব্র্যান্ড হিসেবেও নির্বাচিত করা হয়েছে।

Send Money

বিকাশ অ্যাপ এ যেসকল সুবিধা পাবেন  ( All the benefits you will get in Bkash app )

 

টাকা পাঠানো, মোবাইল রিচার্জ, স্ক্যান QR, পেমেন্ট, পে বিল, টাকা  ট্রান্সফার, অফার, কার্ড ইত্যাদি।

 

বিকাশ অ্যাপ ডাউনলোড করতে ডাউনলোড অপশনে  ক্লিক করুন।

 

Download

 

সেন্ড ম্যানি বা টাকা পাঠানো  ( Send Money )

 

বিকাশ অ্যাপ দিয়ে আপনি খুব সহজেই আপনার কাছ থেকে অন্য করো কাছে টাকা পাঠাতে পারবেন। এবং কি বিকাশ অ্যাপ থেকে টাকা পাঠানো একদম ফ্রী এতে কোনো খরচ প্রয়োজন হয় না কিন্তু যদি ইউএসএসডি কোডের মাধ্যমে সেন্ড ম্যানি করেন তাহলে প্রতি লেনদেনে ৫টাকা খরচ পড়বে।

 

ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং কার্ড থেকে টাকা যোগ করা

 

আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্ট আছে এবং ব্যাংক অ্যাকাউন্ট আছে ব্যাংকে টাকা থাকলেও বিকাশে টাকা নেই কিন্তু আপনার বিকাশে টাকা দরকার  অ্যাড মানির মাধ্যমে  আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বা কার্ড থেকে যেকোনো বিকাশ অ্যাকাউন্টে সাথে সাথে টাকা স্থানান্তর করতে পারবেন।

 

সুপার ফাস্ট QR লেনদেন

 

পেমেন্টের জন্য দোকানে এবং দোকানে হোম স্ক্রিনে স্ক্যান QR বোতামটি ব্যবহার করুন, ক্যাশ আউটের জন্য এজেন্ট পয়েন্টে বা অর্থ পাঠাতে অন্যান্য বিকাশ ব্যবহারকারীদের সাথে দ্রুত লেনদেন করতে এটি ব্যাবহার করতে পারবেন।

 

আপনার অফার

 

আপনার বিকাশ অ্যাপ এর হোম স্ক্রিনের অফার বিভাগের মাধ্যমে বিকাশ থেকে আপনাকে সরাসরি আপনার জন্য সবচেয়ে ভালো অফারগুলো দেখাবে আপনি চাইলে সেইসব অফার নিতে পারেন।

 

লেনদেন শর্টকাট

 

আপনি প্রতিদিন লেনদেন করেন একজনের সাথে সেখানে প্রদিদিন নম্বর না উঠিয়ে একদিন নম্বর উঠানোর পর সেটি সেভ হয়ে থাকে আপনি চাইলে সেটি ব্যাবহার করে প্রতিদিন আপনার অনেক সময় বাঁচাতে পারেন।

 

আপনার জন্য পরামর্শ

 

আপনি অন্য কোন সেবাগুলি যেমন: মার্চেন্টস, বিলার এবং অন্যান্য সেবা সবচেয়ে বেস্ট বিকাশ থেকে আপনাকে সেই সকল সেবা প্রদান করে।

 

মোবাইল রিচার্জ

 

বিকাশ অ্যাপ এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন। বাংলাদেশের সকল নম্বরে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

 

  • রবি

 

  • এয়ারটেল

 

  • বাংলালিংক

 

  • গ্রামীণফোন

 

  • টেলিটক

 

  • স্কিটো

 

বিকাশ অ্যাপ আপনার মোবাইল অপারেটরের সর্বশেষ অফার গুলো আমার রিচার্জের সময় প্রদর্শন করবে। মোবাইল রিচার্জে বিভিন্ন মোবাইল অপারেটরের রিচার্জ-ভিত্তিক ইন্টারনেট, ভয়েস এবং বান্ডেল অফারগুলি দেখুন এবং কিনুন৷

কিভাবে বিকাশে লাইভ চ্যাট করবেন?

 

আপনার বিকাশ সম্পর্কে যদি কোনো সমস্যা হয় আপনি যদি খুবই বেস্থ থাকেন তাহলে আপনি বিকাশে লাইভ চান করতে পারবেন। লাইভ চ্যাট করে আপনি আপনার বিকাশ সম্পর্কে সকল সমস্যার সমাধান পাবেন। আসুন জেনে নিন কিভাবে বিকাশ লাইভ চ্যাট করা যায়:

 

বিকাশ লাভ চ্যাট দুইভাবে করা যায়। 

 

১. বিকাশ অ্যাপ।

২. বিকাশ ওয়েবসাইট

 

বিকাশ অ্যাপ

 

১. বিকাশ অ্যাপ থেকে লাইভ চ্যাট করতে প্রথমে বিকাশ অ্যাপ লগইন করুন।

 

২. বিকাশ মেনুতে যান অর্থাৎ বিকাশ লোগোতে ক্লিক করুন।

 

৩. সাপোর্ট অপশনে ক্লিক করুন।

 

৪. এখন সর্বশেষ লাইভ চ্যাট অপশনে ক্লিক করুন।

 

বিকাশ ওয়েবসাইটে লাইভ চ্যাট

 

১. প্রথমে বিকাশ এর ওয়েবসাইট www.bkash.com এ যান।

 

২. বিকাশ ওয়েবসাইটের মেনুতে যান।

 

৩. মেনু থেকে সাপোর্ট অপশনে ক্লিক করুন।

 

৪. কন্টাক্ট অপশনে ক্লিক করুন।এরপর নিচের দিকে আসুন। সেখানে লাইভ চ্যাট আর একটি লিংক দেওয়া আছে সেখানে ক্লিক করলে আপনি সরাসরি লাইভ চ্যাট এ চলে যাবেন।অথবা বিকাশ লাইভ চ্যাট করতে নিচের লাইভ চ্যাট অপশনে ক্লিক করুন।

 

Live chat 

 

বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম:

 

বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য আপনার একটি জাতীয় পরিচয় পত্র (NID) প্রয়োজন এবং যার জাতীয় পরিচয় পত্র তাকে প্রয়োজন। আগে বিকাশ এর এজেন্টদের মাধ্যমে বিকাশ একাউন্ট খুলে যেত কিন্তু বর্তমানে বিকাশ তাদের সিকিউরিটি উন্নত করেছে যেনো গ্রাহকদের সঠিক সেবা দিতে পারে। যেভাবে বিকাশ একাউন্ট খুলবেন।

 

১. প্রথমে একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন নিন।

 

২. আবার বিকাশ অ্যাপ ডাউনলোড করুন( উপরের লিংক থেকে ডাউনলোড করতে পারেন) এরপর ইনস্টল করে নিন।

 

৩. মোবাইলে ইন্টারনেট সংযোগ দিন এবং লোকেশন অপশনটি অন করে রাখুন। যদি আপনার ফোনটি কোনো vpn এর সাথে যুক্ত থাকে তাহলে কানেকশন বন্ধ করে দিন । কেননা বিকাশ অ্যাপ শুধু বাংলাদেশের জন্য।

 

৪. এবার বিকাশ অ্যাপটি ওপেন করুন। একটু অপেক্ষা করুন। আপনি যদি ওয়াইফাই ব্যাবহার করেন তাহলে একটু সমস্যা হতে পারে তাই মোবাইল নেটওয়ার্ক ব্যাবহার করুন।

 

৫. অ্যাপটি ওপেন হয়েগেলে নিচের দিকে দেখুন লগইন/রেজিষ্টার করুন। সেই অপশনে ক্লিক করুন।

 

৬. রেজিষ্টার অপশন এ ক্লিক করুন।

 

৭. এবার বিকাশ আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের উপরের অংশের অর্থাৎ সামনের অংশের ছবি চাইবে আপনি আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের সামনের অংশ ছবি তুলুন। আপনার ক্যামেরা ব্যাবহার করতে হবে না। বিকাশ থেকে আপনার ক্যামেরা ব্যাবহার করবে।

 

৮. সামনের ছবি তুলা হয়েগেলে। এবার পিছনের অংশের দিকে ছবি তুলুন। মনে রাখবেন ছবি পর্যাপ্ত পরিমাণ স্পষ্ট হতে হবে। ঝাপসা ছবি বিকাশ গ্রহণ করবে না।

 

৯. পিছনের অংশের ছবি নেওয়া হয়ে গেলে আবার সাবমিট করুন বিকাশ আপনার তথ্য যাচাই করবে কনফার্ম হয়ে আপনাকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাবে যদি আপনার তথ্যে সমস্যা থাকে তাহলে তারা বলে দেবে।

 

১০. সবকিছু ঠিক থাকলে আপনি ছবি চাইবে অর্থাৎ যার জাতীয় পরিচয় তার ছবি  উঠতে হবে না। শুধু ক্যামেরার সামনে মুখ দেখাবে এবং চোখের পাতা হালকা নারাবে তাই হবে। বিকাশ থেকে ছবি নেওয়া হয়ে গেলে। আপনাকে বলা হবে *২৪৭# ডায়াল করে পিন সেট করতে।

 

১১. পিন সেট করতে *২৪৭# ডায়াল করে একটি ৫ ডিজিটের পিন দিন যেমন ১৪৩২১, ৪৫৩২১ ইত্যাদি। 

 

১২. পিন সেট করা হয়ে গেলে আপনার একাউন্ট এখন লেনদেন করার জন্য প্রস্তুত। আপনি চাইলে এখন থেকেই লেনদেন শুরু করতে পারেন।

বিকাশ হেল্পলাইন

বিকাশ হেল্পলাইন বা কিভাবে বিকাশের সাহায্য নিবেন

 

আপনি বিভিন্নভাবে বিকাশের সাহায্য নিতে পারবেন। তার মধ্যে যেমন: 

 

১. আপনি নিকটস্থ বিকাশ কাস্টমার কেয়ার এ গিয়ে আপনার সমস্যা বললে তারা আপনাকে সাহায্য করবেন।

 

২. নিকটস্থ এজেন্ট দের কাছে গিয়ে আপনার সমস্যা উল্লেখ করলে তারাও আপনাকে সাহায্য করবে।

 

৩. বিকাশ হেল্পলাইন নম্বর এ যোগাযোগ করে পারবেন বিকাশ হেল্পলাইন নম্বর হলো: 16247 এবং 02-55663001

 

৪. আপনি ইমেইলের মাধ্যমে হেল্প নিতে পারবেন বিকাশ হেল্পলাইন এর ইমেইল একাউন্ট হলো: support@bkash.com

 

৫. বিকাশ লাইভ চ্যাট করেও আপনার সমস্যার সমাধান পাবেন বিকাশ লাইভ চ্যাট করতে উপরের লাইভ চ্যাট লিংকে ক্লিক করুন।

 

বিকাশ কাস্টমার কেয়ার সেন্টার

 

বিকাশ কাস্টমার কেয়ার সেন্টার হলো এমন একটি স্থান যেখানে আপনি আপনার সকল অভিযোগ বা সমস্যার সমাধান পাবেন। এখানে আপনার সাহায্যের জন্য কোনো অর্থের প্রয়োজন নেই তারা আপনার সাহায্যের জন্যই বিকাশ থেকে বেতন পায়। নিকটস্থ কাস্টমারদের যদি কোনো সমস্যা হয় কাস্টমার কেয়ার থেকে তখন সেই ব্যাক্তিকে বলা হয়। তারা এভাবেই সাহায্য করে থাকে।

 

আপনি কিভাবে বিকাশ কাস্টমার কেয়ার এর ঠিকানা পাবেন।

 

১. প্রথমে বিকাশ এর ওয়েবসাইটে যাবেন তারপর কন্টাক্ট ইউজ অপশনে ক্লিক করলেই অনেক কাস্টমার কেয়ার এর ঠিকানা পেয়ে যাবেন। 

 

২. সবচেয়ে সহজ হবে আপনি প্রথমে আপনার গুগল ম্যাপ এ যাবেন।

 

৩. সেখানে বিকাশ কাস্টমার কেয়ার সেন্টার লিখে সার্চ করুন।

 

৪. সেখানে অনেক কাস্টমার কেয়ার এর ঠিকানা পাবেন সেখান থেকে আপনি আপনার নিকটস্থ সেন্টার সিলেক্ট করে নিন।

 

বিকাশ হেল্পলাইন নম্বর কি

 

বিকাশ হেল্পলাইন নম্বর 16247 এবং 02-55663001

বিকাশ হেল্পলাইন ইমেইল এড্রেস support@bkash.com 

বিকাশ লাইভ চ্যাট Live chat

 

বিকাশে গেম খেলে কিভাবে টাকা আয় করা যায়

 

সম্প্রতি বিকাশ অ্যাপ থেকে গেম খেলে টাকা আয় করার উপায় দেওয়া হয়েছে যার সাহায্যে আপনি খুব সহজে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা মূলক গেম খেলে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। 

 

১. প্রথমে বিকাশ অ্যাপ ওপেন করুন। এরপর বার্ড গেম অপশনটি নির্বাচন করুন।

 

২. আপনাকে একটাকার বিনিময়ে ১৫ টি জীবন দেওয়া হবে যার সাহায্যে আপনি ১৫ বার চেষ্টা করতে পারবেন।

 

৩. এই একটাকা বিকাশ গ্রহণ করে এটি বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন গ্রহণ করে তাই আমাদের একবার হলেও আয় গেমটি খেলে উচিত।

 

৪. এছাড়াও সপ্তাহের সের স্কোর যার তার জন্য বিকাশ থেকে থাকছে সেরা উপহার। তবে প্রতিবার আপনি একটাকা দিয়ে ১৫ টি জীবন কিনে ব্যাবহার করতে পারবেন। এর কোনো লিমিট নেই।

 

৫. আপনার ইচ্ছা মত জীবন কিনতে পারবেন কোনো লিমিট নেই।

 

বিকাশে টাকা দেখার নিয়ম ২০২২

 

বিকাশে আপনি দুইভাবে টাকা দেখতে পারবেন। বিকাশ অ্যাপ এর মাধ্যমে আবার ussd কোড ডায়াল করে।

 

বিকাশ অ্যাপ এর মাধ্যমে কিভাবে টাকা দেখবেন:

 

১. বিকাশ অ্যাপ লগইন করুন।

 

২. উপরে দেখুন টেপ ব্যালান্স অপোশনে ক্লিক করুন।

 

বিকাশ ussd কোডের মাধ্যমে টাকা দেখার নিয়ম:

 

১. প্রথমে আপনার মোবাইলের ডায়াল অপশনে গিয়ে লিখুন*২৪৭#

 

২. সেখান থেকে ৮ নম্বর সিলেক্ট করুন আপনার একাউন্ট (My account)

 

৩. ১ নম্বর সিলেক্ট করুন ব্যালান্স দেখুন (Balance Check)

 

৪. এখন আপনার ব্যালান্স দেখতে পারবেন।

 

বিকাশ ক্যাশ আউট চার্জ

 

বিকাশ ক্যাশ আউট চার্জ তিন ভাবে  হিসাব করা হয়।

 

১. Ussd কোড ডায়াল করে বিকাশ থেকে টাকা ক্যাশ আউট করলে আপনাকে ১.৮৪% খরচ দিতে হবে। অর্থাৎ ১০০০ হাজার টাকায় ১৮.৪ টাকা।

 

২. আপনি যদি  বিকাশ অ্যাপ থেকে ক্যাশ আউট করেন তাহলে আপনাকে ১.৭৬% খরচ দিতে হবে। অর্থাৎ ১০০০ হাজার টাকায় ১৭.৬ টাকা।

 

৩. সম্প্রীতি বিকাশ প্রিয় নম্বর এ সেন্ড ম্যানি এবং ক্যাশ আউট চার্জ কিছুটা কমেছে। প্রিয় নম্বর এ সেন্ড ম্যানি একদম ফ্রী। আর প্রিয় নম্বর এ ক্যাশ আউট চার্জ হাজারে ১৪.৯৯ টাকা।

 

বিকাশ অ্যাপ কিভাবে ডাউনলোড করবেন

 

  • বিকাশ অ্যাপ ডাউনলোড করতে প্রথমে প্লে স্টোরে জন।
  • তারপর সার্চ দিন Bkash App
  • সাথে সাথেই বিকাশ অ্যাপ আসবে আপনি ইনস্টল করে নিন।
  • অথবা গুগল এ বিকাশ অ্যাপ লিখে সার্চ দিন। বিকাশ অ্যাপ চলে আসবে সেখানে ক্লিক করুন।
  • এবং ইনস্টল করে নিন।
  • সবচেয়ে সহজ উপায়ে ডাউনলোড করতে চাইলে উপরে ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে বিকাশ অ্যাপ ইনস্টল করে নিন।

 

বিকাশে লেনদেন লিমিট কত?

 

বিকাশে লেনদেন লিমিট আছে। আপনি আপনার ইচ্ছা মত লেনদেন করতে করবেন না। আপনি দৈনিক একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা লেনদেন করে পারবেন।

 

  • দৈনিক লিমিট: বিকাশে আপনি দৈনিক ৫০,০০০ হাজার টাকা পর্যন্ত লেনদেন করতে পারবেন। এর থেকে বেশি লেনদেন করতে হলে আপনাকে এজেন্ট হিসেবে যোগ দিতে হবে।

 

  • মাসিক লিমিট: আপনি মাসিক সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকা লেনদেন করতে পারবেন। সর্বোচ্চ লেনদেন সুবিধা নিতে বিকাশ এজেন্ট এ যোগ দিন।

 

বিকাশ পার্সোনাল একাউন্ট বিকাশ এজেন্ট থেকে ক্যাশ ইন লিমিট হচ্ছে –

 

বিকাশ এজেন্ট এর মাধ্যমে প্রতি ক্যাশ ইনে সর্বনিম্ন ৫০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ৩০,০০০ টাকা ক্যাশ ইন করা যায়।

বিকাশ থেকে কিভাবে সেন্ড ম্যানি এবং ক্যাশ আউট করবেন

 

বিকাশ থেকে সেন্ড ম্যানি এবং ক্যাশ আউট করা খুবই সহজ সব চেয়ে বেশি সহজ বিকাশ অ্যাপ থেকে সেন্ড ম্যানি এবং ক্যাশ আউট করা। আসুন জেনে নেই কিভাবে বিকাশ অ্যাপ থেকে সেন্ড ম্যানি করা যায়

 

১. প্রথমে বিকাশ অ্যাপ লগইন করুন।

 

২. সেন্ড ম্যানি অপশনে ক্লিক করুন।

 

৩. যার কাছে সেন্ড ম্যানি করবেন তার নম্বরটি লিখুন।

 

৪. টাকার পরিমাণ লিখুন।

 

৫. আপনার গোপন পিন নম্বরটি লিখুন।

 

৬. সেন্ড ম্যানি করার জন্য টেপ করে ধরে থাকুন।

 

Ussd কোডের মাধ্যমে সেন্ড ম্যানি করার নিয়ম:

 

১. প্রথমে ডায়াল অপশনে গিয়ে লিখুন *২৪৭#

 

২. তিন নম্বর অপশন সেন্ড ম্যানি সিলেক্ট করুন।

 

৩. যার কাছে পাঠাবেন তার নম্বরটি লিখুন।

 

৪. টাকার পরিমাণ লিখুন।

 

৫. একটি রেফার নম্বর দিন (আপনার ইচ্ছা মত)।

 

৬. আপনার গোপন পিন নাম্বার দিন।

 

মানুষ মাত্রই ভুল হতে পারে। বিকাশ অ্যাপ এবং এর সুবিধা কিছুদিন পর পর পরিবর্তন করে বিকাশ কর্তিপক্ষো। তাই

বিকাশ সম্পর্কে এতকিছু লেখার পর যদি কিছু ভুল হয়ে থাকে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন এবং যদি কোনো প্রশ্ন থাকে আমাদের কমেন্ট অপশনে গিয়ে আপনার মন্তব্য জানাতে পারেন।

  • Leave a Comment