আয়াতুল কুরসী ( Ayatul Kursi Arabic )

 

আল কুরআনের ২৫৫ নং আয়াতকে আয়াতুল কুরসী বলা হয়। কুরসী শব্দের অর্থ সিংহাসন। আয়াতুল কুরসীর ফযীলত অনেক তার মধ্যে কিছু ফযীলত দেওয়া হলো:

 

১. আয়াতুল কুরসী পাঠ করে আপনি যদি কোনো বস্তুর উপর ফু দেন তাহলে সেই বস্তু হারানোর ভয় থাকেন। কেননা মহান আল্লাহ তায়ালা সেই বস্তুকে রক্ষা করেন।

 

২. প্রত্যেক ফরয নামাযের পর যদি আপনি আয়াতুল কুরসী পাঠ করেন তাহলে মৃত্যু হওয়ার সাথে সাথে আপনি হবেন জান্নাতী। তাই প্রতিদিন ফরয নামাযের পর আয়াতুল কুরসী পাঠ করুন।

 

৩. ঘুমানোর আগে আয়াতুল কুরসী পাঠ করে বুকে ফু দিয়ে ঘুমান। আপনি ঘুমানোর সময় আপনাকে কোনো খারাপ শক্তি ভর করতে পড়বে না কারণ ফেরেশতারা আপনাকে পাহারা দিবে।

 

আয়াতুল কুরসীর আরও অনেক ফযীলত আছে যা বর্ণনা করে শেষ করা যাবে না। আয়াতুল কুরসীর আরবি উচ্চারণ দেখুন___

আয়াতুল কুরসী আরবি উচ্চারণ

Table of Contents

আয়াতুল কুরসী আরবি উচ্চারণ: Ayatul Kursi Arabic Pronunciation

 

اَللهُ لآ إِلهَ إِلاَّ هُوَ الْحَىُّ الْقَيُّوْمُ، لاَ تَأْخُذُهُ سِنَةٌ وَّلاَ نَوْمٌ، لَهُ مَا فِى السَّمَاوَاتِ وَمَا فِى الْأَرْضِ، مَنْ ذَا الَّذِىْ يَشْفَعُ عِنْدَهُ إِلاَّ بِإِذْنِهِ، يَعْلَمُ مَا بَيْنَ أَيْدِيْهِمْ وَمَا خَلْفَهُمْ وَلاَ يُحِيْطُوْنَ بِشَيْئٍ مِّنْ عِلْمِهِ إِلاَّ بِمَا شَآءَ، وَسِعَ كُرْسِيُّهُ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضَ، وَلاَ يَئُودُهُ حِفْظُهُمَا وَ هُوَ الْعَلِيُّ الْعَظِيْمُ (সূরা বাকারা -২৫৫) 

 

আয়াতুল কুরসীর বাংলা উচ্চারণ: Bengali Pronunciation of Ayatul Kursi:

আল্লা-হু লা ইলা-হা ইল্লা হুওয়াল হাইয়্যুল ক্বাইয়্যুম। লা তা’খুযুহু সিনাতুঁ ওয়ালা নাঊম। লাহূ মা ফিস্ সামা-ওয়াতি ওয়ামা ফিল আরদ্বি। মান যাল্লাযী ইয়াশফাউ’ ই’ন্দাহূ ইল্লা বিইজনিহি। ইয়া’লামু মা বাইনা আইদিহিম ওয়ামা খালফাহুম, ওয়ালা ইউহিতূনা বিশাইয়্যিম্ মিন ‘ইলমিহি ইল্লা বিমা শা-আ’ ওয়াসিআ’ কুরসিইয়্যুহুস্ সামা-ওয়া-তি ওয়াল আরদ্বি, ওয়ালা ইয়াউ’দুহূ হিফযুহুমা ওয়া হুওয়াল ‘আলিইয়্যুল আ’জিম। (সূরা বাক্বারা আয়াত-২৫৫)।

 

সূরা বাকারার শেষ দুই আয়াত  ( The last two verses of Surah Baqarah )

 

সূরা বাকারার শেষ দুই আয়াত আরবি উচ্চারণ:

 

  

ءَامَنَ ٱلرَّسُولُ بِمَآ أُنزِلَ إِلَيْهِ مِن رَّبِّهِۦ وَٱلْمُؤْمِنُونَ كُلٌّ ءَامَنَ بِٱللَّهِ وَمَلَٰٓئِكَتِهِۦ وَكُتُبِهِۦ وَرُسُلِهِۦ لَا نُفَرِّقُ بَيْنَ أَحَدٍ مِّن رُّسُلِهِۦ وَقَالُوا۟ سَمِعْنَا وَأَطَعْنَا غُفْرَانَكَ رَبَّنَا وَإِلَيْكَ ٱلْمَصِيرُ

 

لَا يُكَلِّفُ ٱللَّهُ نَفْسًا إِلَّا وُسْعَهَا لَهَا مَا كَسَبَتْ وَعَلَيْهَا مَا ٱكْتَسَبَتْ رَبَّنَا لَا تُؤَاخِذْنَآ إِن نَّسِينَآ أَوْ أَخْطَأْنَا رَبَّنَا وَلَا تَحْمِلْ عَلَيْنَآ إِصْرًا كَمَا حَمَلْتَهُۥ عَلَى ٱلَّذِينَ مِن قَبْلِنَا رَبَّنَا وَلَا تُحَمِّلْنَا مَا لَا طَاقَةَ لَنَا بِهِۦ وَٱعْفُ عَنَّا وَٱغْفِرْ لَنَا وَٱرْحَمْنَآ أَنتَ مَوْلَىٰنَا فَٱنصُرْنَا عَلَى ٱلْقَوْمِ ٱلْكَٰفِرِينَ (২৮৫-২৮৬)

 

সূরা বাকারার শেষ দুই আয়াত বাংলা উচ্চারণ: 

 

আ-মানাররাছূলু বিমাউনঝিলা ইলাইহি মির রাব্বিহী ওয়াল মু’মিনূনা কুল্লুন আ-মানা বিল্লাহি ওয়া মালাইকাতিহী ওয়া কুতুবিহী ওয়া রুছুলিহী লা-নুফাররিকুবাইনা আহাদিম মির রুছুলিহী ওয়া কা-লূ ছামি‘না ওয়াআতা‘না গুফরা-নাকা রাব্বানা-ওয়া ইলাইকাল মাসীর।

 

লা-ইউকালিলফুল্লা-হু নাফছান ইল্লা-উছ‘আহা-লাহা-মা কাছাবাত ওয়া ‘আলাইহা-মাকতাছাবাত রাব্বানা-লা-তুআ-খিযনা ইন নাছীনা-আও আখতা’না-রাব্বানা ওয়ালা-তাহমিল ‘আলাইনা-ইসরান কামা-হামালতাহূ আলাল্লাযীনা মিন কাবলিনা-রাব্বানা-ওয়ালা তুহাম্মিলনা-মা-লা-তা-কাতা লানা-বিহী ওয়া‘ফু‘আন্না-ওয়াগফিরলানা-ওয়ারহামনা-আনতা মাওলা-না-ফানসুরনা-‘আলাল কাওমিল কা-ফিরীন।

আয়াতুল কুরসীর বাংলা ব্যাখ্যা

আয়াতুল কুরসীর বাংলা ব্যাখ্যা ( Bengali interpretation of Ayatul Kursi )

 

আয়াতুল কুরসী প্রথমেই বলা হয়েছে যে, আল্লাহ ছাড়া কোনো উপাস্য বা ইবাদাতের যোগ্য কেউ নেই। এরপর আল্লাহর গুণাবলি বর্ণনা হয়েছে। اَلْـحَيُّ শব্দের মাধ্যমে জানানো হয়েছে যে, তিনি সর্বদা জীবিত (চিরঞ্জীব)। قَيُّوْمُ শব্দের অর্থ দুটি অর্থ, একটি হচ্ছে চিরস্থায়ী, আরেকটি হচ্ছে, সবকিছুর ধারক, অর্থাৎ তিনি নিজে বিদ্যমান থেকে অন্যকেও বিদ্যমান রাখেন এবং নিয়ন্ত্রণ করেন। অতঃপর বলা হয়েছে তাকে তন্দ্রা ও নিদ্রা স্পর্শ করতে পারে না, অর্থাৎ মহাবিশ্বের নিয়ন্ত্রণ তাকে ক্লান্ত করে না। পরের অংশে বলা হয়েছে, আল্লাহ আকাশ এবং পৃথিবীর সবকিছুর মালিক এবং তিনি যা কিছু করেন তাতে কারও আপত্তি করার অধিকার নেই। (আয়াতুল কুরসী)  তাঁর অনুমতি ছাড়া তার কাছে সুপারিশ করার ক্ষমতাও কারো নেই। বলা হয়েছে, আল্লাহ অগ্র-পশ্চাৎ যাবতীয় অবস্থা ও ঘটনা সম্পর্কে অবগত। অগ্র-পশ্চাৎ বলতে এ অর্থ হতে পারে যে, তাঁদের জন্মের পূর্বের ও জন্মের পরের যাবতীয় অবস্থা ও ঘটনাবলি আল্লাহ জানেন। অথবা এই অর্থও হতে পারে যে, ‘অগ্র’ বলতে মানুষের কাছে প্রকাশ্য, আর ‘পশ্চাৎ’ বলতে বোঝানো হয়েছে যা অপ্রকাশ্য বা গোপন। আল্লাহ যাকে যে পরিমাণ জ্ঞান দান করেন সে শুধু ততটুকুই পায়। পরের অংশে বলা হয়েছে তাঁর কুরসি তথা সিংহাসন এতই বড় যে, তা সমগ্র আকাশ ও পৃথিবীকে পরিবেষ্টিত করে রেখেছে। ( আয়াতুল কুরসী ) এ দুটি বৃহৎ সৃষ্টি এবং আকাশমণ্ডল ও পৃথিবীর রক্ষণাবেক্ষণ করা তাঁর জন্য সহজ। শেষ অংশে আল্লাহকে “সুউচ্চ সুমহান” বলা হয়েছে।

 

সূরা হাশরের শেষ তিন আয়াত ( The last three verses of Surah Hashar )

 

সূরা হাশরের শেষ তিন আয়াত আরবি উচ্চারণ:

 

هُوَ اللَّهُ الَّذِي لَا إِلَهَ إِلَّا هُوَ عَالِمُ الْغَيْبِ وَالشَّهَادَةِ هُوَ الرَّحْمَنُ الرَّحِيمُ (22) هُوَ اللَّهُ الَّذِي لَا إِلَهَ إِلَّا هُوَ الْمَلِكُ الْقُدُّوسُ السَّلَامُ الْمُؤْمِنُ الْمُهَيْمِنُ الْعَزِيزُ الْجَبَّارُ الْمُتَكَبِّرُ سُبْحَانَ اللَّهِ عَمَّا يُشْرِكُونَ (23) هُوَ اللَّهُ الْخَالِقُ الْبَارِئُ الْمُصَوِّرُ لَهُ الْأَسْمَاءُ الْحُسْنَى يُسَبِّحُ لَهُ مَا فِي السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضِ وَهُوَ الْعَزِيزُ الْحَكِيمُ [الحشر:22-24]

 

সূরা হাশরের শেষ তিন আয়াত বাংলা উচ্চারণ:

 

হুআল্লা হুল্লাজি লা-ইলাহা ইল্লা হুয়া, আলিমুল গাইবী ওয়াশ শাহাদাদি, হুয়ার রহমানুর রহিম। হুআল্লা হুল্লাজি লা-ইলাহা ইল্লা হুয়াল মালিকুল কুদ্দুসুস সালামুল মু’মিনুল মুহাইমিনুল আজিজুল জাব্বারুল মুতাকাব্বির। ছুবহানাল্লোহি আম্মা ইয়ূশরিকুন। হুআল্লাহুল খলিকুল বা-রিউল মুছাওওয়িরু লাহুল আসমাউল হুসনা। ইউছাব্বিহু লাহু মা ফিস-সামাওয়াতি ওয়াল আরদ্ব; ওয়া হুয়াল আজিজুল হাকিম।

 

আয়ান নামের অর্থ কি? What does the name Ayan mean?

 

আয়ান নামের  অর্থ হচ্ছে “আয়ান (أيّان) শব্দটি একটি আরবি শব্দ। এর অর্থ বয়স, সময়, কাল, যুগ ইত্যাদি।”

 

আয়াত নামের অর্থ কি? What is the meaning of the name Ayat?

 

আয়াত নামের অর্থ হচ্ছে ” আয়াত নামটি আরবি ভাষার শব্দ। এটি খুবই শ্রুতিমধুর। আয়াত নামের আরবি অর্থ চিহ্ন, সূত্র, বাক্য ইত্যাদি ।”

 

আয়শা নামের অর্থ কি? What does the name Aisha mean?

 

আয়শা নামের অর্থ হচ্ছে “আয়েশা (عائشة) নামটি আরবি ভাষার শব্দ। আয়েশা নামটি পবিত্র কোরানেও উল্লেখ করা হয়েছে। আয়েশা নামের অর্থ জীবিত, সুখী জীবন যাপন করা, জীবন, জীবিকা ইত্যাদি।”

 

আয়াতুল কুরসী বাংলা উচ্চারণ ছবি Ayatul Kursi Bengali pronunciation picture

 

আয়াতুল কুরসী বাংলা উচ্চারণ ছবি দেখুন:

 

আয়াতুল কুরসী বাংলা উচ্চারণ ছবি

 

বাংলাদেশের আয়তন কত? What is the size of Bangladesh?

 

বাংলাদেশের আয়তন ১,৪৭,৫৭০ বর্গ কিলোমিটার।

 

বাংলাদেশের আয়তন ২০২১  Size of Bangladesh is 2021

 

বাংলাদেশের আয়তন ১৪৭৫৭০ বর্গ কিলোমিটার।

GO TO HOME PAGE

 

  • Leave a Comment